Tips & tricks

আনিসুল হক আইন মন্ত্রী

আনিসুল হক আইন মন্ত্রী

আজকে আমরা এমন একজন ব্যক্তি সম্পর্কে আলোচনা করব। যিনি হচ্ছেন বাংলাদেশের বর্তমান আইনমন্ত্রী। আশা করি আপনারা বুঝে গেছেন যে কার সম্পর্কে আজকে আমরা আলোচনা করতে যাচ্ছি। বাংলাদেশের আইন মন্ত্রী আনিসুল হক সাহেবের সম্পর্কে আজকে আমরা বিস্তারিত কিছু আলোচনা করব। আলোচনার বিষয়বস্তু গুলো নিচে দেয়া হলো আপনারা তা এক নজরে দেখে নিন। আশাকরি আপনাদের আনিসুল হক সাহেবের সম্পর্কের যদি কোন জানার ইচ্ছে থাকে তাহলে আপনারা নিচের বিষয় বস্তু থেকে আপনাদের কাঙ্খিত জানার বিষয়গুলো খুঁজে পাবেন।

আজকের পরিচ্ছেদসমূহ

  • আনিসুল হক সাহেবের পারিবারিক জীবন
  • তার শিক্ষা জীবন
  • তার ব্যক্তিগত জীবন
  • তার রাজনৈতিক জীবন

আনিসুল হক সাহেবের পারিবারিক জীবন

এখন আমরা কথা বলবো আনিসুল হক সাহেবের পারিবারিক জীবন সম্পর্কে। আশা করি সবাই মনোযোগ সহকারে পড়বেন। আনিসুল হক তৎকালীন কুমিল্লা জেলার ব্রাহ্মণবাড়িয়া কসবার পানিয়ারুপ গ্রামে 30 মার্চ 1956 সালে জন্মগ্রহণ করেন। আনিসুল হক সাহেবের পিতার নাম সিরাজুল হক এবং মাতার নাম জাহানারা হক। তার বাবাও একজন এডভোকেট ছিলেন। এডভোকেট সিরাজুল হক ও তার ছেলে অ্যাডভোকেট আনিসুল হক তারা দুজনে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী হিসেবে হাজার 1980 থেকে 2014 সময়কালে দেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সংবেদনশীল ফৌজদারি মামলার আইনজীবী হিসেবে কাজ করেছিল।

আনিসুল হকের শিক্ষাজীবন

তিনি ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ঢাকার একটি সেন্ট জোসেফ স্কুল থেকে ও-লেভেল পাস করেন।আনিসুল হক তারপর ব্রিটিশ কাউন্সিল বাংলাদেশ মাধ্যমে এ-লেভেল সম্পন্ন করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি সাহিত্য বিভাগে ভর্তি হন। আনিসুল হক এ বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। তারপর তিনি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এলএলবি পাস করে মেধাতালিকায় প্রথম স্থান অর্জন করেন এবং লন্ডনের বিখ্যাত একটি কলেজ লন্ডন কিংস কলেজ থেকে এল এল এম পাস করেন।

আনিসুল হকের কর্মজীবন

তিনি হচ্ছেন পেশায় একজন আইনজীবী এবং রাজনীতিবিদ।তিনি 1985 সালের নভেম্বর মাসে ঢাকা জেলা আইনজীবী এবং 1987 সালের নভেম্বর মাসে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের আইনজীবী হিসাবে তালিকাভুক্ত হন। তিনি বঙ্গবন্ধুর হত্যা মামলা এবং জেলহত্যা মামলায় প্রধান প্রসিকিউটর সিলেট। তারি আইনি পরামর্শ বঙ্গবন্ধু খুনের মামলা টিক শেষ হয় এবং বাংলাদেশের শীর্ষ আদালত রায় প্রদান করে।তিনি আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ কেসের সমাধান করেন সেটি হচ্ছে পিলখানা মামলা। তিনি পিলখানা মামলার প্রসিকিউটর ছিলেন।

ব্যক্তিগত জীবন

তার ব্যক্তিগত জীবন বলতে গেলে অন্যান্য 10 জন মানুষের চেয়ে একটু আলাদা। তিনি হাজার 1987 সালের 18 ডিসেম্বর নূর আমাতুল্লাহ রিনা হকের সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। নুর আমাতুল্লাহ রিনা হক হাজার 1991 সালের 2 জানুয়ারি সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যুবরণ করেন। তারপর তিনি আর কখনোই বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন নাই।

আনিসুল হক সাহেবকে আমার ব্যক্তিগতভাবে অনেক ভালো লাগে তিনি অনেক ভালো জন মানুষ। আমার এই তথ্যগুলো উইকিপিডিয়া থেকে সংগ্রহীত। আমি যতটুকু পেরেছি চেষ্টা করেছি আপনাদের সামনে উনার তথ্যগুলো তুলে ধরতে।দুধের মধ্যে কোন প্রকার ভুল হয়ে থাকে তাহলে ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন এবং কমেন্ট সেকশনে তা জানিয়ে দেবেন আমি তৎক্ষণাৎ আপডেট করে দিব।