News

জেনে নিন ২০২২ সালের কতো তারিখ শবে মিরাজ, শবে বরাত, শবে কদর

জেনে নিন ২০২২ সালের কতো তারিখ শবে মিরাজ, শবে বরাত, শবে কদর,সম্মানিত পাঠক, আসসালামু আলাইকুম। আজকে আমরা আপনাদের কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় এর সময়সূচী জানিয়ে দেবো। উপরের হেডলাইন দেখে হয়তো আপনারা এতক্ষণে বুঝে ফেলেছেন যে আমি কোন বিষয়গুলো কথা বলতেছি। আজকে আপনাদের সাথে 2022 সালের শবে মেরাজ শবে কদর এবং শবে বরাতের সময়সূচী এবং এই দিনগুলো কবে সে সকল বিস্তারিত বিষয় গুলো আপনাদের সাথে আলোচনা করব। এছাড়াও এই দিনগুলোর ফজিলত এবং আমল সম্পর্কে আপনাদের সাথে আলোচনা করবো। আশা করি আপনারা আমাদের এই পোস্ট টি মনোযোগ সহকারে পড়বেন এবং এই সকল বিষয়ে বিস্তারিত একটি জ্ঞান লাভ করবেন।

শবে মিরাজ ২০২২ সালের কতো তারিখ

এখন আমরা আপনাদের সাথে শবে মেরাজ কবে অনুষ্ঠিত হবে এবং এর শবে মেরাজের গুরুত্ব কি এবং এর সম্পর্কে রাসূল সাল্লাহু সাল্লাম এর হাদিস সমূহ আপনাদের সাথে শেয়ার করব।ইসলাম ধর্মে লাইলাতুল মেরাজ কে শবে মেরাজ ও বলা হয়। এ রাতে রাসুল পাক সাঃ সাত আসমানে আল্লাহর সাথে সাক্ষাত করেছিলেন এবং এড়াতে তাঁর বান্দাদের জন্য পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ নিয়ে এসেছিলেন। যার ফলে এ রাতের গুরুত্ব এবং তাৎপর্য অনেক। এর কারণে মানুষ এ রাত্রে নামাজ আদায় করে এবং আল্লাহ তালার কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করে যাদের তাদের সমস্ত গুনাহ মাফ হয়ে যায়।

ইসলামের ইতিহাস অনুযায়ী মুহাম্মাদের (সা:) নবুওয়াতের দশম বৎসরে (৬২০ খ্রিষ্টাব্দ) রজব মাসের ২৬ তারিখের দিবাগত ইসলামের নবী মুহাম্মাদ (সাঃ) প্রথমে কাবা শরিফ থেকে জেরুজালেমে অবস্থিত বায়তুল মুকাদ্দাস বা মসজিদুল আকসায় গমন করেন এবং সেখানে তিনি নবীদের জামায়াতে ইমামতি করেন। অতঃপর তিনি বোরাক নামক বিশেষ বাহনে আসীন হয়ে ঊর্ধ্বলোকে গমন করেন। ঊর্ধ্বাকাশে সিদরাতুল মুনতাহায় তিনি আল্লাহ’র সাক্ষাৎ লাভ করেন। এই সফরে ফেরেশতা জিবরাইল তার সফরসঙ্গী ছিলেন।কুরআন শরিফের সুরা বনি ইসরাঈল এর প্রথম আয়াতে এ প্রসঙ্গে বলা হয়েছে

“পবিত্র মহান সে সত্তা, যিনি তাঁর বান্দাকে রাতে নিয়ে গিয়েছেন আল মাসজিদুল হারাম থেকে আল মাসজিদুল আকসা পর্যন্ত, যার আশপাশে আমি বরকত দিয়েছি, যেন আমি তাকে আমার কিছু নিদর্শন দেখাতে পারি। তিনিই সর্বশ্রোতা, সর্বদ্রষ্টা।”[কুরআন ১৭:১

২০২২ সালের পবিত্র লাইলাতুল মিরাজ- ১ইং মার্চ

ছুটির দিন

আশুরাআরবাঈ’নআল-ঘাদিয়াচাঁদ রাতঈদুল ফিতরঈদুল আজহাইমামত দিননববর্ষলাইলাতুল মেরাজশবে কদরমাওলিদরমজানশবে বরাত।

আরো পড়ুন:স শবে বরাত কেন পালন করা হয়-এই রাতের ফজিলত ও আমল

শবে বরাত ২০২২ সালের কতো তারিখ

শবে বরাত

এখন আপনাদের সাথে শবে বরাত 2022 সালের কত তারিখে এবং এর গুরুত্ব ও ফজিলত সম্পর্কে আলোচনা করব এবং এদের সম্পর্কে যে হাদীস রয়েছে সেগুলো আপনাদের সাথে শেয়ার করব।

শবে বরাত বা মধ্য-শা’বান প্রতিবর্ণী. নিসফে শাবান‎) বা লাইলাতুল বরাত হচ্ছে হিজরী শা’বান মাসের ১৪ ও ১৫ তারিখের মধ্যবর্তী রাতে পালিত মুসলিমদের গুরুত্বপূর্ণ রাত।এই রাতে আল্লাহ তার বান্দাদেরকে বিশেষভাবে ক্ষমা করেন।

একটি হাদীসে বলা হয়েছে,

রসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেন, আল্লাহ মধ্য শাবানের রাতে আত্নপ্রকাশ করেন এবং মুশরিক ও হিংসুক ব্যতীত তাঁর সৃষ্টির সকলকে ক্ষমা করেন।

— (ইবনু মাজাহ, আস- সুনান ১/৪৪৫; বাযযার, আল-মুসনাদ ১/১৫৭, ২০৭, ৭/১৮৬; আহমদ ইবনু হাম্বল, আল-মুসনাদ ২/১৭৬; ইবনু আবি আসিম, আস-সুন্নাহ,পৃ ২২৩-২২৪; ইবনু হিব্বান, আস-সহীহ ১২/৪৮১; তাবরানী, আল-মুজাম আল-কাবীর, ২০/১০৮, ২২/২২৩; আল-মুজাম আল-আওসাত, ৭/৬৮; বায়হাক্বী, শু’আবুল ঈমান, ৩/৩৮১; ইবনু খুযায়মা, কিতাবুত তাওহীদ ১/৩২৫-৩২৬।

“এ মাসে রাব্বুল আলামীনের কাছে মানুষের কর্ম উঠানো হয়। আর আমি ভালবাসি যে, আমার রোযা রাখা অবস্থায় আমার আমল উঠানো হোক।”

— (নাসাঈ, আস-সুনান ৪/২০১; আলবানী, সহীহুত তারগীব ১/২৪৭।

আলী ইবনে আবী তালেব (রাঃ) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন : যখন মধ্য শাবানের রাত আসে তখন তোমরা রাত জেগে সালাত আদায় করবে আর দিবসে সিয়াম পালন করবে। কেননা আল্লাহ তা’আলা সূর্যাস্তের পর দুনিয়ার আকাশে অবতরণ করে বলেন : আছে কি কোন ক্ষমা প্রার্থনাকারী আমি তাকে ক্ষমা করব। আছে কি কোন রিয্‌ক প্রার্থনাকারী আমি রিয্‌ক দান করব। আছে কি কোন বিপদে নিপতিত ব্যক্তি আমি তাকে সুস্থ্যতা দান করব। এভাবে ফজর পর্যন্ত বলা হয়ে থাকে। (ইবনে মাজাহ ও বাইহাকী)

২০২২ সালের পবিত্র লাইলাতুল বরাত- ১৯ ইং মার্চ

আরো পড়ুন: ২০২২ সালে রমজান কত তারিখে শুরু এবং শেষ হবে

শবে কদর ২০২২ সালের কতো তারিখ

শবে কদর (ফার্সি বা লাইলাতুল কদর  এর অর্থ “অতিশয় সম্মানিত ও মহিমান্বিত রাত” বা “পবিত্র রজনী”। ফার্সি ভাষায় “শাব” ও আরবি ভাষায় “লাইলাতুল” অর্থ হলো রাত্রি বা রজনী, অন্যদিকে ‘কদর’ শব্দের অর্থ সম্মান, মর্যাদা, মহাসম্মান।৬১০ সালে শবে কদরের রাতে মক্কার নূর পর্বতের হেরা গুহায় ধ্যানরত ইসলামের ধর্মের মহানবী, হযরত মুহাম্মদের সঃ নিকট সর্বপ্রথম কোরআন নাজিল হয়। কোন কোন মুসলমানের ধারণা তার নিকট প্রথম সূরা আলাক্বের প্রথম পাঁচটি আয়াত নাজিল হয়।

আল্লাহ কোরআনে ঘোষণা করেছেন,

নিশ্চয়ই আমি তা (কোরআন) অবতীর্ণ করেছি কদরের রাতে। আর কদরের রাত সম্বন্ধে তুমি কি জানো? কদরের রাত হাজার মাস অপেক্ষা শ্রেষ্ঠ। সে রাতে ফেরেশতারা ও রুহ অবতীর্ণ হয় প্রত্যেক কাজে তাদের প্রতিপালকের অনুমতিক্রমে। শান্তিই শান্তি, বিরাজ করে উষার আবির্ভাব পর্যন্ত। (সূরা আল-কদর, আয়াত ১-৫)

২০২২ সালের পবিত্র লাইলাতুল কদর- ২৯ইং এপ্রিল