Tips & tricks

ব্রকলি রান্নার নতুন ৫টি রেসিপি-Broccoli cooking recipe

ব্রকলি রান্নার রেসিপি,সম্মানিত ভিজিটর, আজকে আমরা আপনাদের ব্রকলি নতুন কিছু রেসিপি আপনাদের সাথে শেয়ার করব। তার আগে বলে রাখি ব্রকলি হচ্ছে ফুলকপির একটি প্রজাতি। আমাদের দেশে এর তেমন কোন চাষাবাদ হয় না। তবে দেশের বাইরের অনেক চাহিদা রয়েছে। দেশের মানুষ ফুলকপি চিনে কিন্তু ব্রকলি বললে তারা খুব কমই চিনবে। ব্রকলি সবুজ ফুলকপি। এর ইংলিশ নাম হচ্ছে ব্রকলি। আমরা ব্রকলি নতুন কিছু রেসিপি আপনাদের সাথে শেয়ার করব। যাতে আপনারা ঘরে বসেই ওই ছবিগুলো তৈরি করতে পারে ন।ব্রকলি রান্নার নতুন ৫টি রেসিপি নিচে দেওয়া হলো।

ব্রকলি চিজ মাফিন

উপকরণ

ব্রকলি ১ কাপ (মিহি করে কুচানো), ময়দা ১ কাপ, ওটস্ আধা কাপ, চেডার চিজ ১ কাপ, ডিম ১টি, বেকিং পাউডার ১ চা-চামচ, তরল দুধ আধা কাপ, চিনি দেড় চা-চামচ, লবণ সিকি চা-চামচ এবং তেল বা গলানো মাখন ২ টেবিল চামচ।

ব্রকলি মুরগি সালাদ

উপকরণ

ছোট ব্রকলি ১টি (ফুলের মতো কেটে নিয়ে অল্প লবণ দিয়ে আধা সেদ্ধ করে নেওয়া), মুরগির বুকের মাংস ১ কাপ (অল্প আদা বাটা, রসুন বাটা, গোলমরিচ গুঁড়ো, সয়াসস দিয়ে অল্প তেলে লালচে করে ভেঁজে নেওয়া), গাজর আধা কাপ (কিউব করে কেটে অল্প লবণ দিয়ে সেদ্ধ করা), লাল বা সবুজ অথবা কালো আঙুর আধা কাপ (অর্ধেক করে কেটে নেওয়া), আনার দানা সিকি কাপ, মালটার রস আধা কাপ, চিলি ফ্লেক্স স্বাদমতো, চিনি স্বাদমতো (ইচ্ছে হলে), লেবুর রস ১ টেবিল চামচ ও লবণ স্বাদমতো।

প্রণালি

বড় পাত্রে ব্রকলি, মুরগির মাংস, গাজর, আঙুর, স্বাদমতো লবণ (যদি প্রয়োজন হয়) দুটো চামচের সাহায্যে হালকা নেড়ে মিশিয়ে নিন। অপর একটা ছোট বাটি বা পাত্রে মালটার রস, চিলি ফ্লেক্স, চিনি, লেবুর রস মিশিয়ে ড্রেসিং বানিয়ে নিন। ১০ মিনিট রেখে দিন। এরপর সালাদের ওপরে সালাদ ড্রেসিং ছড়িয়ে আলতো হাতে কাঠের চামচ বা কাটা চামচের সাহায্যে মিশিয়ে নিন। পরিবেশন পাত্রে ঢেলে ওপরে আনার দানা ছড়িয়ে সালাদ পরিবেশন করুন। মাল্টার রসের বদলে মেয়োনেজ বা জলপাই তেলও ব্যবহার করা যেতে পারে। দেশি স্বাদ আনতে চাইলে পেঁয়াজ, কাঁচা মরিচ আর ধনেপাতা কুঁচি মিশিয়ে নিতে পারেন।

ব্রকলি দেখ শুটকি রেসিপি

প্রথমে আপনাকে পরিমাণমতো ব্রকলি নিতে হবে। ব্রকলি গেল মাঝারি আকারের কাটতে হবে। তারপর পরিমাণমতো মসলা লবণ তেল সবকিছু দিতে হবে। তারপর শুটকি গুলো গরম পানিতে কিছুক্ষণ রেখে দিতে হবে। যাতে শুটকির ময়লা গুলো এবং দুর্গন্ধ তা চলে যায়। তারপর ব্রকলি অর্ধেক রান্না হয়ে গেলে শুটকি মাছ গুলো দিয়ে দিতে হবে। তারপর পনের বিশ মিনিট রান্না করলে রেসিপি তৈরি।

ব্রকলি খাওয়ার উপকারিতা

  •  গ্যাসট্রাইটিস প্রতিরোধ: গ্যাসট্রিক আলসার ও গ্যাসট্রাইটিস প্রতিরোধে দারুণ কার্যকর ব্রোকলি। বাঁধাকপির চেয়ে এতে অনেক বেশি ভিটামিন ইউ (মেথিওনাইনের উপজাত) থাকে। এতে সালফরাফেন নামের উপাদান থাকে যা গ্যাসট্রিক অ্যালসার ও ক্যানসার প্রতিরোধ করে।
  •  ক্যানসার প্রতিরোধ: ব্রোকলির বিটা ক্যারোটিন ও সেলিনিয়াম যৌথ ও ভিটামিন সি প্রোস্টেট, কোলন, ফুসফুস, যকৃত, স্তন ও প্যানক্রিয়াটিক ক্যানসারের বিরুদ্ধে লড়তে সাহায্য করে।
  •  ত্বক সুন্দর করে: ব্রোকলিতে থাকা ভিটামিন সি ত্বক সুন্দর করে। এ ছাড়া এতে ডায়াটারি আঁশ থাকায় কোষ্ঠকাঠিণ্য প্রতিরোধ করে।
  • রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়: সেলিনিয়াম দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এতে প্রচুর ভিটামিন এ থাকায় ত্বকে ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ হতে বাধা দেয়। সর্দি-কাশিও ঠেকাতে পারে ব্রোকলি।
  •  বয়স ঠেকাতে: শরীরে সক্রিয় অক্সিজেন প্রতিরোধ করে ও বিষমুক্ত করে দ্রুত বুড়িয়ে যাওয়া ঠেকাতে সাহায্য করে ব্রোকলি।
  • ভিটামিন সি: লেবুর দ্বিগুণ ও আলুর সাত গুণ ভিটামিন সি ব্রোকলিতে। বলা হয়, যাঁদের ভিটামিন সি দরকার, তাঁরা অল্প করে হলেও ব্রোকলি প্রতিদিন খেতে পারেন।