Tips & tricks

ফেসবুকে ছেলে পটানোর কৌশল-সৌন্দর্য দিয়ে ছেলে পটানোর উপায়

আজকে আপনাদের সাথে কথা বলবো ফেসবুকে ছেলে পটানোর কৌশল সম্পর্কে। বাংলাদেশ পুরুষশাসিত সমাজ। অনেকেই প্রশ্ন করতে পারেন যে এই পুরুষ শাসিত সমাজে ছেলে পটানোর কৌশল শেখার কি দরকার। আমি তাদের উদ্দেশ্যে একটা কথা বলব যে হাতের পাঁচটি আঙুল যেমন সমান না তেমনি সমাজের সব ছেলেরা একরকম না। আমাদের সমাজে একটি রিতি রয়েছে যে ছেলেরা শুধু মেয়েদের পাঠাবে।ছেলেরা মেয়েদের পিছন পিছন ঘুরে, মেয়েদের বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে থাকবে, এরকম একটি ধারনা আমাদের সবার।

ফেসবুকে ছেলে পটানোর কৌশল

অনেক ছেলে আছে যারা একটু ভিন্ন।আরে ভিন্নধর্মী ছেলেদের মেয়েরা বেশি পছন্দ করে থাকে। সে সকল মেয়েদের বলবো কিভাবে আপনারা সেই অন্যরকম ছেলেদের পাঠাবেন। ছেলেদের পটানোর অনেকগুলো কৌশল রয়েছে।সে কৌশলগুলোর যদি আপনারা প্রয়োগ করেন তাহলে অনায়াসে যে কোন ছেলেকে আপনারা বশে আনতে পারবেন। কি সেই কৌশল গুলো। চলুন আজকে ফেসবুকে ছেলে পটানোর কৌশল সমূহ নিয়ে বিস্তারিত আপনাদের সাথে আলোচনা করব।

আরো পড়ুন

সুন্দর আচার ব্যবহার

একটি মেয়ে যদি সুন্দর আচার-ব্যবহার থাকে। সে যদি খুব ভদ্র এবং নম্র হয় তাহলে সে সকল মেয়েদের জন্য ছেলেরা একটু দুর্বল থাকে। কোনো মেয়ের যদি আচার-ব্যবহার খুব সুন্দর হয় কথাবার্তা খুব মার্জিত হয়। তাহলে সেই সকল মেয়েরা অতি সহজে ছেলে পটিয়ে ফেলতে পারে। তার জন্য মেয়েদের প্রথমেই খুব নম্র ভদ্র হতে হবে ,কথাবার্তা খুব সুন্দর হতে হবে গুরুজনদের সাথে সম্মানের সহিত কথা বলতে হবে।

সুন্দর ঘন কালো কেশ

কোনো মেয়ের যদি সুন্দর ঘন কালো লম্বা কেশ থাকে। তাহলে ছেলেরা সেই সকল মেয়েদের প্রতি অনেকটাই দুর্বল থাকে। কারণ ছেলেদের একটি পছন্দের জিনিস হলো মেয়েদের সুন্দর ঘন কালো চুল।কোন মেয়ে যদি তার চুল সুন্দর করে পার্লার থেকে স্টেট করে কালার করে নিয়ে আসে তাহলে দেখবেন অনেক ছেলেরাই সে মেয়েদের দিকে তাকিয়ে থাকে। কারণ ছেলেদের এই রকম চুল অনেক পছন্দের।যে সকল মেয়েরা যদি কোন ছেলেকে পছন্দ করে থাকে তাহলে তাদের সামনে একটি চুল নাড়াচাড়া করলে ছেলেরা তাদের প্রতি অনেক দুর্বল হয়ে যায়। এজন্য ছেলে পটানোর একটি দিক হলো মেয়েদের ঘন কালো সুন্দর চুল।

সোশ্যাল মিডিয়াতে ছেলে পটানোর কৌশল

সোশ্যাল মিডিয়া হচ্ছে এমন একটি জায়গা যেখানে তার মনের ভাব প্রকাশ করতে পারে সবাই। অনেক ছেলেরা আছে যারা প্রেম করতে চাই কিন্তু কোন মেয়েকে বলতে পারেনা। তখন তারা তাদের মনের ভাবগুলো ফেসবুকে মাধ্যমে শেয়ার করে থাকে।যদি কোন মেয়ে সে ছেলেটিকে পছন্দ করে তাহলে আপনি অতি সহজেই ফেসবুকের মাধ্যমে তার স্ট্যাটাস পড়ে আপনি তার সম্পর্কে অনেক কিছু জানতে পারবেন।যদি সেখান থেকে জানা সম্ভব না হয় তাহলে আপনি সেই ছেলেটির কাছের কোন বন্ধুকে মা বান্ধবীর কাছ থেকে তার সম্পর্কে জানুন এবং সেই ছেলেটি কি কি পছন্দ করেসে কাজগুলো আপনি তার সামনে কিংবা আশেপাশে গিয়ে করবেন।

তাহলে আপনি খুব সহজেই তার নজরে পড়ে যাবেন। তখন ছেলেটি ভাববে যে আমি যা যা পছন্দ করি এই মেয়েটির দিকে সেই জিনিস গুলো পছন্দ করে। তখন ছেলেটি আপনার প্রতি অনেকটা দুর্বল হয়ে যাবে। তখন ছেলেটি আপনার সাথে কথা বলতে চেষ্টা করবে। তখনই আপনি ছেলেটির সাথে বন্ধুত্ব করুন আচরণ করবেন এবং বন্ধুত্ব সৃষ্টি করবেন। তারপর আপনি তার সাথে সময় দিবেন এবং যখন আপনাদের একটি ভাল বন্ধুত্ব হয়ে যাবে তখন আপনার মনের কথাটি চ্যানেলটাকে জানিয়ে দিবেন।

চরিত্রবান হওয়া

চরিত্র হচ্ছে সৌভাগ্যের চাবিকাঠি। একটি মানুষের সবচেয়ে বড় সম্পদ হচ্ছে চরিত্র। যদি সে সব চরিত্রের মানুষ হয় তাহলে তাকে সবাই ভালোবাসি পছন্দ করে।যদি একটি মেয়ের চরিত্র সৎ হয় তাহলে সে মেয়েটাকে সবাই পছন্দ করে।তার যদি কোন মেয়ের চরিত্র বিশুদ্ধ থাকে তাহলে সে মেয়েটির প্রতি সব ছেলেরা দুর্বল থাকে।আর যদি কোন মেয়ের চরিত্র ভাল না থাকে তাহলে কোনো ছেলেরাই তাকে পছন্দ করবে না পছন্দ করলেও ক্ষণিকের জন্য তাকে ব্যবহার করবে। তাই আপনাকে সৎ চরিত্রের অধিকারী হতে হবে। তাহলে আপনি আপনার পছন্দের কাঙ্খিত মানুষকে পেয়ে যাবেন।

সৌন্দর্য দিয়ে ছেলে পটানোর উপায়

রাস্তা দিয়ে একটি সুন্দরী তরুণী ফেটে গেলে যে কোন ছেলে দুইবার তার দিকে তাকাবে। এবং মনে মনে পড়বে মেয়েটা তো অনেক সুন্দর। সুন্দরের পূজারী আমরা সবাই। সুন্দর জিনিস দেখলে সবারই ভালো লাগে।সুন্দরী মেয়েরা সব সময়ই ছেলে পটানোর দিক থেকে কয়েক ধাপে এগিয়ে থাকে কারণ তাদের মেন আকর্ষণ হচ্ছে সৌন্দর্য। এই সৌন্দর্য আপনাকে সব সময় ধরে রাখতে হবে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখতে হবে। তাহলে আপনি এই সৌন্দর্য দিয়েই আপনার কাঙ্ক্ষিত পুরুষ কে পটিয়ে ফেলতে পারবেন।সৌন্দর্য হলো একটি ছেলে পটানোর সর্বোত্তম পন্থা।

সর্বশেষে একটি কথাই বলবো। যদি আপনাদের মনের কাঙ্খিত কোন পুরুষ থেকে থাকে তাহলে উপরের যে নিয়ম গুলো দেওয়া হল এগুলো মেনে চলতে থাকুন। তাহলে অবশ্যই আপনি আপনার কাঙ্ক্ষিত পুরুষ কে পেয়ে যাবেন। এই আর্টিকেলটি পরে যদি আপনাদের বিন্দুমাত্র উপকার হয় তাহলে আমাদের কমেন্ট বক্সে তা জানিয়ে দিন। তাহলে আমরা আরো সুন্দর সুন্দর আর্টিকেল আপনাদের মাঝে নিয়ে আসতে পারবো।