halth tips

চুলের যত্ন – ছেলে ও মেয়ের চুলের যত্নের সকল তথ্য

চুলের যত্ন

চুল হচ্ছে মানুষের একটি সৌন্দর্যের অংশ। আপনার চেহারা ভালো না হলেও সুন্দর চুল থাকলে সে চুল পরিপাটি করে রাখলে আপনাকে অনেক সুন্দর লাগবে। সে আদিকাল থেকে মানুষ চুলের যত্নে বিভিন্ন ধরনের ঘরোয়া পদ্ধতি অবলম্বন করে আসছে। বর্তমান সময়ে মানুষ বিভিন্ন ধরনের হেয়ার প্রোডাক্ট ব্যবহার করেও চুলের যত্ন করে থাকে।

আজকে আপনাদের বলব কিভাবে চুলের যত্ন নিতে হয়। চুলকে কিভাবে পরিপাটি করে রাখতে হয়। কি পন্থা অবলম্বন করলে চুল মজবুত এবং শক্ত থাকে। কিভাবে আপনার চুলকে সুন্দর এবং সতেজ রাখতে পারবেন সে সকল বিস্তারিত তথ্য আপনাদের সাথে শেয়ার করব।

চুলের বিভিন্ন ধরনের রয়েছে। অনেকের চুল মোটা হয়ে থাকে। আবার অনেকের চুল একটু সিল্কি ধরনের হয়ে থাকে। এর জন্য আলাদা আলাদা টিপস রয়েছে যেগুলো ব্যবহার করলে আপনাদের অনেক উপকারে আসবে। যেমন মোটা চুল অনেক কিছু সহ্য করতে পারে কিন্তু চিকন চুল যত্ন খুব সেনসিটিভ কারণ এর চুল কম শক্তিশালী এবং সব ধরনের প্রতিকূল পরিবেশ সহ্য করতে পারোনা।

আরো পড়ুন:

  1. ইবনে সিনা স্পেশালাইজড হাসপাতাল ধানমন্ডি dhaka-ডাক্তার লিস্ট
  2. পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার লিঃ চট্টগ্রাম

আজকের পরিচ্ছেদসমূহ

  • চুলের যত্নে তেল
  • চুলের যত্নে পেঁয়াজের রস
  • শ্যাম্পু ব্যবহারের নিয়ম
  • চুলের যত্নে লেবু ও মেথি
  • চুলের যত্নে ডিমের ব্যবহার
  • চুল পড়া কমাতে নিম পাতার ব্যবহার
  • চুলের যত্নে কয়েকটি হেয়ার ভিটামিন ই ক্যাপ

চুলের যত্নে তেল

মানুষ সেই আদিকাল থেকে চুলের যত্নে তেল ব্যবহার করে আসতেছে। আদিম যুগের মানুষ সরিষার তেল জয়তনের তেল ব্যবহার করে থাকতো। তারা তাদের ঘরোয়া পদ্ধতিতে এর সকল তেল তৈরি পড়ে থাকতো। বর্তমান সময়ে বাজারে অনেক ধরনের তেল পাওয়া যায় যা চুলের জন্য অত্যন্ত কার্যকরী।

রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে যদি ভালোভাবে মাথার চুল মেসেজ করে তেল লাগিয়ে ঘুমাতে যান তাহলে সেটি চুলের জন্য খুবই উপকারী। কারণ রাত্রিতে চুলে কোন প্রকার ধুলাবালি লাগে না যার ফলে সারারাত চুলগুলো তেলে ভিজতে থাকে এবং চুলগুলো সতেজ হয়ে যায় এবং চুল ঘন হয় ও চুলের গোড়া শক্ত হয়।

চুলের যত্নে পেঁয়াজের রস

চুলের যত্ন পেয়াজ

পেঁয়াজ এর রস চুল পড়া কমাতে সাহায্য করে। পেঁয়াজ ভালোভাবে পিসে সেখান থেকে রস বের করে প্রতিদিন গোসলের এক ঘণ্টা আগে কিংবা রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে চুলের গোড়ায় ভালোভাবে ম্যাসাজ করে নিলে চুলের গোড়া শক্ত হয় এবং চুল পড়া বন্ধ হয়।

শ্যাম্পু ব্যবহারের নিয়ম

প্রতিদিন গোসল যাওয়ার আধা ঘণ্টা আগে চুলে ভালোভাবে নারিকেল তেল ম্যাসেজ করে তারপর চুলের শ্যাম্পু ইউজ করতে হবে। এ নিয়ম ফলো করলে আপনার চুল পড়া বন্ধ হবে। চুল সুন্দর ও সতেজ থাকবে।

চুলের যত্নে লেবু ও মেথি

লেবু ও মেথি চুলের জন্য খুবই উপকারী একটি সামগ্রি। সেই আদিকাল থেকে চুল পড়া কমাতে মেথির গুনাগুন অনস্বীকার্য। লেবুর রস ও মেথি একসাথে মিক্স করে চুলের গোড়ায় ভালোভাবে মেসেজ করলে খুব তাড়াতাড়ি চুল পড়া বন্ধ হয়ে যায় এবং চুলের গোড়া অনেক শক্ত হয়।

চুলের যত্নে ডিমের ব্যবহার

চুল পড়া কমাতে ডিম খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।ডিমের সাদা অংশ থেকে কুসুম বাদ দিয়ে সে সাদা অংশ চুলের গোড়ায় আলতোভাবে মেসেজ করে দুই থেকে তিন ঘণ্টা রেখে দিলে চুলের গোড়া শক্ত হয় এবং চুল অনেক মসৃণ হয়।

চুল পড়া কমাতে নিম পাতার ব্যবহার

নিম একটি ভেষজ উদ্ভিদ। যার নানাবিধ ও গুনাগুণ রয়েছে। মাথার স্কাল্পে যদি চর্মরোগ হয় তাহলে চুল পড়ে যায়। এই চর্মরোগ কমাতে নিমপাতা ভালোভাবে পিসে মাথার স্কাল্পে লাগিয়ে রাখলে এক সপ্তাহ ব্যবহারে আপনার চুল পড়া বন্ধ হয়ে যাবে এবং চুল হয়ে উঠবে উজ্জ্বল ও মসৃণ।

চুলের যত্নে কয়েকটি হেয়ার ভিটামিন

বর্তমান সময়ে চুলের যত্নে অনেক ভিটামিন বের হয়েছে। তাদের মধ্যে ই-ক্যাপ অনেক কার্যকরী। যাতে রয়েছে ভিটামিন এ যা চুলের জন্য খুবই উপকারী ।ভিটামিনের অভাবে মূলত হেয়ার ফল হয়। এই ই-ক্যাপ যদি আপনি প্রতিদিন রাতে একটি করে খান কিংবা তেলের সাথে এই ক্যাপসুলটি মিশিয়ে আপনার মাথার স্ক্যাল্পে লাগান তাহলে আপনার চুল পড়া রাতারাতি বন্ধ হয়ে যাবে।