Tips & tricks

মেহেদি হাসান ব্যক্তিগত জীবন এবং খেলোয়াড়ী জীবন

মেহেদি হাসান ব্যক্তিগত জীবন এবং খেলোয়াড়ী জীবন সকল তথ্য,মেহেদী হাসান (জন্ম: ২৫ অক্টোবর ১৯৯৭) একজন বাংলাদেশী ক্রিকেটার। বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ জাতীয় অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলের অধিনায়ক।

মেহেদী হাসান, বাংলাদেশ জাতীয় দলের একটি পরিচিত মুখ। আপনি কি মেয়ে দে হাসান এর অনেক বড় ভক্ত? আপনি কি মেহেদী হাসান এর জীবন বৃত্তান্ত তার ব্যক্তিগত জীবন এবং খেলোয়াড় জীবন সম্পর্কে জানতে চান? তাহলে আপনি সঠিক পোস্টে ভিজিট করেছেন। আজকে আমরা আপনাদের বাংলাদেশ জাতীয় দলের খেলোয়ার মেহেদী হাসান এর ব্যক্তিগত জীবন এবং এর খেলোয়ার জীবন সম্পর্কে বিস্তারিত একটি তথ্য আপনাদের সাথে শেয়ার করব। যদি আপনি মেয়ে দশন মেরাজ সম্পর্কে জানতে চান তাহলে আমাদের এই পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়বেন। সেই সাথে এই পোস্টটি শেয়ার করে দিবেন যাতে অন্যরাও তার সম্পর্কে বিস্তারিত একটি তথ্য জানতে পারে।

সিয়াম আহমেদের বয়স,ব্যক্তিগত জীবন এবং কর্মজীবন এর সকল বায়ো ডাটা

মেহেদি হাসান ব্যক্তিগত জীবন

২০১৫ সালের ডিসেম্বরে তিনি ২০১৬ আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপ প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের অনূর্ধ্ব ১৯ ক্রিকেট দলের অধিনায়ক হিসেবে নির্বাচিত হন ।মেহেদী হাসান মিরাজ জন্ম ২৫ অক্টোবর ১৯৯৭ (বয়স ২৪) খুলনা, বাংলাদেশ তিনি একজন বাংলাদেশী ক্রিকেটার। বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ জাতীয় অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলের অধিনায়ক এবং একজন পরিপূর্ণ অল-রাউন্ডার ক্রিকেটার হিসেবে ভূমিকা পালন করছেন। ২০১৯ এর মার্চে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন মিরাজ ও রাবেয়া আক্তার প্রীতি। ২০২০ সালের অক্টবরে পুত্র সন্তানের জনক হয়েছেন জাতীয় দলের এই ক্রিকেটার।

মেহেদি হাসান ব্যক্তিগত জীবন

মেহেদি হাসান খেলোয়াড়ী জীবন তথ্য

এখন আমরা আপনাদের সাথে মেহেদী হাসান এর খেলোয়াড়ি জীবনের সকল তথ্য শেয়ার করব সে অনূর্ধ্ব 19 এ কতগুলো ম্যাচ খেলেছে এবং সে আন্তর্জাতিক ভাবে কতগুলো ম্যাচ খেলেছে সে সকল বিস্তারিত একটি তথ্য আপনাদের সাথে শেয়ার করব।

২০ অক্টোবর ২০১৬, মেহেদীর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক হয়। তিনি একজন অফ ব্রেক বোলার। তিনি তার প্রথম টেস্ট ইনিংসে ৫ উইকেটসহ ইংল্যান্ডের অভিষেক খেলোয়াড় বেন ডাকেটের উইকেটও লাভ করেন।

মেহেদী ২০১৫ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি রাজশাহী বিভাগের বিপক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে আত্মপ্রকাশ করেন। অভিষেক ম্যাচে তিনি ৫১ রান সংগ্রহ করেন।  ২০১৬ আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে সেমি ফাইনালে প্রবেশ করতে সামর্থ্য হয়।  তৃতীয় প্লে-অফে শ্রীলঙ্কা জাতীয় অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলকে পরাজিত করে তৃতীয় স্থান অধিকার করে।৬ ম্যাচে ব্যাট হাতে ২৪২ রান এবং বল করে ১২ উইকেট লাভ করেন।

প্রতিযোগিতা—– টেস্ট—–ওডিআই —-প্রথম-শ্রেণী      

ম্যাচ সংখ্যা           ২৪            ৪৯         ৪৪         ২৭

রানের সংখ্যা       ৭৪৮        ৩৯৪         ১৫৭৭   ৪৮১

বল করেছে         ৫,৬৭২    ২৪৭৭         ১০,৫৯৬              ১,১৩৬

উইকেট               ১০৩        ৫৪         ১৭৫      ২৭