Tips & tricks

মেসেঞ্জার (Messenger) কল রেকর্ড করার উপায় – অডিও ও ভিডিও কল রেকর্ডিং এর নতুন নিয়ম ২০২২

মেসেঞ্জার (Messenger) কল রেকর্ড করার উপায় – অডিও ও ভিডিও কল রেকর্ডিং এর নতুন নিয়ম ২০২২,আপনি কি ম্যাসেঞ্জারে ভয়েস রেকর্ড করতে চাচ্ছেন। তাহলে এই পোষ্ট টি আপনার জন্য। বর্তমান সময়ে মেসেঞ্জার ব্যবহার করে আর প্রায় 90 শতাংশ। এই ব্যবহারকারীর মধ্যে অনেকেই রয়েছে যারা মেসেঞ্জার এর কথা রেকর্ড করতে চাই। কিন্তু কিভাবে করবে সে বিষয়ে তাদের কোনো ধারণা বা কোনো জ্ঞান নেই। আজকে আমরা এমন কিছু সফটওয়্যার এর কথা বলব। যে সফটওয়্যার দিয়ে আপনি খুব সহজেই আপনি ম্যাসেঞ্জারের ভয়েস রেকর্ড করতে পারবেন। তাহলে চলুন সফটওয়্যার গুলো সম্পর্কে একটু পরিচিত হওয়া যাক।

Messenger কল রেকর্ড করার উপায়

আগেই বলেছি যে মেসেঞ্জারে কল রেকর্ড করতে হলে কিংবা ভয়েস রেকর্ড করতে হলে অনেকগুলো সফটওয়্যার রয়েছে। বর্তমান সময়ে মানুষ টাকার কাঠ ব্যবহার করা ছেড়ে দিয়েছে। এর কারণ হচ্ছে দিন দিন কল রেট যে হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে তাতে টাকা দিয়ে কথা বলা অসম্ভব। প্রচুর ব্যয়বহুল। কিন্তু এর বিপরীত দিকে ইন্টারনেট ব্যবহার করে কথা বললে তার খরচ অনেক কম। যার ফলে মানুষ দিন দিন মেসেঞ্জারে কথা বেশি বলতেছে। এর কারণ হচ্ছে মেসেঞ্জারে ইন্টারনেটের মাধ্যমে খুব সহজেই বিশ্বের যেকোন প্রান্তে খুব ক্লিয়ার কথা বলা যায়। যার ফলে মানুষ দিন দিন ইন্টারনেটের দিকে ঝুঁকছে।

কিন্তু ইন্টারনেটে কথা বলতে হলে অনেকেই সে কথা রেকর্ড করে রাখতে চায়। কিন্তু কিভাবে রাখবে সে বিষয়ে তাদের কোনো ধারণা নেই। আজকে আমরা এমন কিছু সফটওয়্যার কথা বলব যার মাধ্যমে আপনারা খুব সহজেই ভয়েস রেকর্ড করে রাখতে পারবেন।

বাংলা থেকে ইংরেজি অনুবাদ করার সফটওয়্যার – বাংলা থেকে ইংরেজি কিভাবে করব?

অডিও কল রেকর্ড করার উপায়

যদি আপনার কাছে একটি স্মার্টফোন থাকে। আপনি খুব সহজেই মেসেঞ্জার ভয়েস কিংবা ভিডিও কল রেকর্ড করতে পারবেন। কিন্তু সেটা কিভাবে?

  • আপনি যদি এরকম কিছু করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে মোবাইলের প্লে স্টোরে একটি আইডি খুলে সেখানে প্রবেশ করতে হবে।
  • তারপর সেখান স্কিন রেকর্ড লিখে সার্চ অপশনে সার্চ করতে হবে।
  • তারপর দেখবেন অনেকগুলো সফটওয়্যার সেখানে এসেছে।
  • তারপর আপনার পছন্দ অনুযায়ী সফটওয়্যার টি ডাউনলোড করে। তা ইন্সটল করে আপনি আপনার মেসেঞ্জার কল রেকর্ড এবং ভিডিও স্ক্রিন রেকর্ড করতে পারবেন খুব সহজে।

মেসেঞ্জারে কথা বলার ক্ষেত্রে সাবধান হতে হবে কেন

প্রত্যেকটি জিনিসের যেমন ভালো দিক রয়েছে তেমনি সেটার খারাপ দিকও রয়েছে। বর্তমানে মেসেঞ্জার এবং ইমুতে যে সকল কথোপকথন হয় অনেক সময় দেখা যায় সেই কথাগুলো ভাইরাল হয়ে যায়। এর মানে আপনি যে কথাগুলো বলতেছেন সেগুলো অন্য কেউ আড়ি পেতে শুনতেছে। যার ফলে বিভিন্ন সময় নেট দুনিয়ায় অনেক অডিও ক্লিপস এবং আপত্তিকর ভিডিও বের হয়। এর ফলে আমাদের প্রত্যেককে সচেতন হতে হবে।