health tips

জয়তুন ফল-সুন্নাহ জাতীয় এই ফলের উপকারিতা

জয়তুন ফল-সুন্নাহ জাতীয় এই ফলের উপকারিতা,সম্মানিত পাঠক, আমাদের ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার জন্য আপনাকে জানাই স্বাগতম। উপরের কিওয়ার্ড দেখে হতে ভাবনারা বুঝে ফেলেছেন যে আজকে আমরা কি সম্পর্কে আপনাদের সাথে তথ্য শেয়ার করব। আজকের আলোচনার বিষয় হচ্ছে জয়তুন ফল ও সোনা জাতীয় ফলের উপকারিতা। আমাদের দেশে প্রায় অনেকেই জয়তুন ফলের কথা শুনেছেন। এই ফলের কথা হাদিস এ বর্ণনা আছে। চলুন আজকে আমরা জানবো জয়তুন ফল কি? জয়তুন ফলের উপকারিতা কি কি?

জয়তুন এক ধরনের ফল। যার বৈজ্ঞানিক নামঃ Olea europaea।জয়তুন গাছ একধরনের চিরহরিৎ বৃক্ষ। জয়তুন গাছ ৮-১৫ মিটার লম্বা হয়ে থাকে। এর পাতা ৪-১০ সে.মি. লম্বা ও ১-৩ সে.মি. প্রশস্ত হয়ে থাকে। জয়তুন ফল বেশ ছোট আকারের, লম্বায় মাত্র ১-২.৫ সে.মি. লম্বা হয়ে থাকে।জয়তুনকে অনেকেই জলপাই এর সাথে এক করে ফেলে, যদিও এ দুটি সম্পূর্ণ আলাদা ফল।

১ সপ্তাহ ধরে খেলে ক্ষতিকর LDL কোলেস্টেরল কমায় এবং উপকারী এইচডিএল (HDL) কোলেস্টেরল বাড়ায়। স্প্যানিশ  গবেষকরা দেখিয়েছেন, খাবারে জয়তুন তেল ব্যবহার করলে ক্লোন ক্যান্সার (Colon cancer) প্রতিরোধ হয়। আরও কিছু গবেষক দেখিয়েছ, এটা ব্যাথা নাশক (Pain Killer) হিসাবে কাজ করে। গোসলের পানিতে ১/৪ চামচ ব্যবহার করে গোসল করলে শরীরে শিথিলতা পাওয়া যায়। মেয়েদের রূপ বর্ধনের জন্য এটা অনেকটা কার্যকর।

গরম পানি খাওয়ার ৫+টি উপকারিতা ও অপকারিতা

নবীজীর (সা.) প্রিয় ফল জয়তুন

আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাই সালাম এর প্রিয় ফলগুলোর মধ্যে জয়তুন ফল একটি। মহান আল্লাহ তায়ালা সূরা ত্বীন এর প্রথম আয়াতে দুটি ফলের কসম খেয়েছেন। এর একটি হচ্ছে জয়তুন ফল আরেকটি হচ্ছে তিন ফল। আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম এর পছন্দের ফল ছিল জয়তুন। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম এর নিজে ব্যবহার করতেন। তার পাশাপাশি তার সাহাবাগণ কে এই তেল ব্যবহার করার উপদেশ দিতেন। এ থেকে বোঝা যায় যে এই জয়তুন ফলের উপকারিতা কতটুকু। নিচে জয়তুন ফলের ও তেলের উপকারিতা দেওয়া হল।

সুন্নাহ জাতীয় জয়তুন ফল উপকারিতা

সুন্নাহ জাতীয় জয়তুন ফল উপকারিতা

জয়তুন ফল ও তেলের উপকারিতা অনেক। সেই আদিকাল থেকে জয়তন ফল ও তেলের বিভিন্ন ধরনের ঔষধি ব্যবহার হয়ে আসছে। শরীর সুস্থ রাখতে জয়তুন ফল ও এই ফলের তেল খুবই উপকারী। কিন্তু আমাদের দেশে এই জয়তুনের তেল ও ফলের সম্পর্কে মানুষের তেমন কোন ধারণা নেই। কারণ আমাদের দেশে জয়তুনের তেলের অনেক বেশি মূল্য হওয়ার কারণে তারা বিকল্প পথ ব্যবহার করে।

আজকে আমরা আপনাদের এই জয়তুন ফলের ও তেলের উপকারিতা সম্পর্কে জানাবো। কারণ মানবজাতি এখন আধুনিক চিকিৎসা পদ্ধতি অভ্যস্ত। কিন্তু তারা যদি একটু চেষ্টা করে তাহলে তারা প্রকৃতি থেকেই বিভিন্ন ধরনের জটিল রোগের ঔষধ তৈরি করতে পারবে। ঠিক সেরকমই কিছু জটিল রোগের মহৌষধ এই অলিভ অয়েল তেল। তাহলে চলুন এই ফলের উপকারিতা জানা যাক।

  • মানব দেহে কোষের সুরক্ষা জয়তুনের ফল খুব ভালো ভূমিকা কাজ করে। কারণ এর ফলে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট।
  • জয়তুন ফল খাওয়ার ফলে মানব দেহের ফাইবারের চাহিদা পূরণ হয়। কারণে ফলে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে আঁশ বা ফাইবার।
  • শরীরে টিউমার নিরাময়ের ক্ষেত্রে জয়তুন ফলের গুনাগুন খুবই উপকারী।
  • দাঁতের যত্নে জয়তুন ফল খুব কার্যকরী। তার জন্য রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাই সালাম এর ডাল দিয়ে মেসওয়াক করতেন।
  • জয়তুন ফলের রস প্রচুর পরিমাণে সোডিয়াম পটাশিয়াম আয়রন এর মত খনিজ পদার্থ যা শরীরের কোন পদার্থের অভাব থাকলে তা পূরণ করে।
  • ক্যান্সারের ঔষধ হিসেবে জয়তুনের ফল খুবই উপকারী। কারণ এটি কোষের মেমব্রেনকে রক্ষা করে ক্যান্সার বিস্তার কমায়।
  • শরীরে রক্তশূন্যতা পরিবর্তনের জয়তনের ফলের ভূমিকা অপরিসীম।

ভিটামিন এ এর অভাব জনিত রোগ এর লক্ষন ও এর প্রতিকার

সুন্নাহ জাতীয় জয়তুন তেলের উপকারিতা

  • দাঁতের সুরক্ষাঃ দাঁতের ক্যাভিটি, শরীরের রগ ফুলে যাওয়া এসব সমস্যার সমাধানে জয়তুনের ফল খুবই উপকারী।
  •  চুলের যত্নঃ চুলের সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য জয়তুনের তেলের কোনো জুরি নেই। এই তেল মাথায় মালিশ করলে চুলের বৃদ্ধি ও সৌন্দর্য ফিরিয়ে আনা যায়।
  • ক্যান্সারের চিকিৎসাঃ টিউমার,  ক্যান্সার সমস্যার চিকিৎসায় জয়তুনের তেল ভাল কাজ করে।
  •  কোষ্ঠকাঠিন্যের সমাধানঃ কোষ্ঠকাঠিন্য  সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে জয়তুনের তেল।
  • উত্তম ব্যথানাশকঃ ব্যথানাশক ঔষধের বিকল্প হিসেবে জয়তুনের তেল ব্যবহার করা যায়।  তাছাড়া জয়তুনের তেলে থাকা অলেইক এসিড হৃদপিণ্ড সুস্থ রাখতে সহায়তা করে।
  • ভিটামিন-ই সমৃদ্ধঃ জয়তুনের তেল ভিটামিন -ই সমৃদ্ধ।  যাদের ভিটামিন-ই এর অভাব রয়েছে তারা অবশ্যই জয়তুনের তেল খেয়ে দেখতে পারেন।