Info Fact 360

স্থায়ীভাবে ফর্সা হওয়ার ডাক্তারি ক্রিম

স্থায়ীভাবে ফর্সা হওয়ার ডাক্তারি ক্রিম। সম্মানিত পাঠক, আমাদের ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার জন্য আপনাকে জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন ।আপনি কি স্থায়ীভাবে ফর্সা হওয়ার ডাক্তারি ক্রিম খুঁজতেছেন? তাহলে আপনি সঠিক পোস্টে ভিজিট করেছেন। কারণ আজকে আমরা আপনাদের সাথে শেয়ার করব ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী স্থায়ীভাবে ফর্সা হওয়ার ক্রিম সম্পর্কে। আপনাদের সুবিধার্থে আমরা সেই ক্রিম এর গুনাগুন এবং পিকচার শেয়ার করে দেবো। এর ফলে আপনার নিকটস্থ বিভিন্ন ধরনের ক্রিম এর দোকান থেকে আপনারা এই ক্রিমগুলো সংগ্রহ করতে পারবেন।

স্থায়ীভাবে ফর্সা হওয়ার  ক্রিম

প্রত্যেকটি নারীর স্বপ্ন থাকে সে তার ত্বককে কোমল এবং ফর্সা করে তুলবে। এর ফলে তারা বিভিন্ন ধরনের ক্রিম কিম্বা টিপস নিয়ে থাকে বিউটিশিয়ান দের কাছ থেকে। এ সকল টিপস নিয়ে তারা তাদের face চর্চা করে থাকে। ফর্সা হওয়ার জন্য বাজারে অনেক ধরনের ক্রিম রয়েছে ।সেই সাথে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের হারবাল জাতীয় ক্রিম। এই ক্রিম ব্যাবহার করে অনেক মানুষ রয়েছে যারা ভাল ফলাফল পেয়েছে।

 বর্তমান সময়ে বাজারে ভেজাল পণ্য দ্রব্যের কারণে অনেক মানুষ প্রতারিত হচ্ছে। দেখা যায় তারা সঠিক পণ্য কিনতে গিয়ে সেই প্রোডাক্টের ভেজাল পণ্য কিনে নিয়ে আসে। এর ফলে তারা সাময়িকভাবে ফর্সা হলেও দীর্ঘদিন ব্যবহার করার পর  তাদের ত্বকে বিভিন্ন ধরনের দাগ স্পট চলে আসে। তখন তারা কোন উপায় না পেয়ে ডাক্তারের পরামর্শ নেয়া কিংবা অভিজ্ঞ ত্বক বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে থাকে। তাদের জন্য আজকে আমরা আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডের কিছু ফর্সা হওয়ার ক্রিম পিকচার শেয়ার করব। যে ক্রিম গুলো আপনারা ব্যবহার করলে স্থায়ীভাবে ফর্সা হয়ে যাবেন কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়া।

ফর্সা হওয়ার ক্রিম এর নাম

যদি আপনি স্থায়ীভাবে ফর্সা হতে চান তাহলে আমাদের দেখানো ক্রিম গুলোর নাম এবং পিকচার সংগ্রহ করে সেই ক্রিম গুলো ব্যবহার করতে পারে। যুগ যুগ ধরে নারীরা তাদের সৌন্দর্য চর্চা করে আসতেছে। অতীত ঘাটলে দেখা যায় আগের যুগের মানুষ তাদের সৌন্দর্যচর্চার জন্য মাটি ব্যবহার করত। মেয়েরা তাদের সৌন্দর্য চর্চার জন্য কোন আপোষ করেন। একটি প্রডাক্টের যত দামি হোক সেটা সে ব্যবহার করার চেষ্টা করে। সৌন্দর্যচর্চার জন্য মানুষ বিভিন্ন ধরনের ভেষজ উদ্ভিদ ব্যবহার করে থাকে। আদি যুগে দেখা যেত মানুষ তাদের সৌন্দর্য চর্চায় চন্দন ব্যবহার করতেন। কিন্তু বর্তমান সময়ে সেটি অনেক ব্যয়বহুল হওয়ার কারণে সেটা আর সম্ভব নয়।

 কিন্তু বর্তমান বাজারে মানুষ ভেজাল সৌন্দর্যের প্রসাধনী নিয়ে এসেছে। সেগুলো এমনভাবে তৈরি যেটা দেখে বোঝার উপায় নেই। এর ফলে মানুষ বিভিন্নভাবে প্রতারিত হচ্ছে। এ রূপচর্চার জন্য কত মেয়ে রাতভর চেষ্টা করছে তাদের সৌন্দর্য বাড়াতে। তাদের চেষ্টা যেন ভুলে না যায় সে জন্য আজকে আমরা কিছু world-wide বা বিশ্বখ্যাত সৌন্দর্য হওয়ার বিউটি ক্রিম আপনাদের সাথে শেয়ার করব।

ফর্সা হওয়ার নাইট ক্রিম এর নাম

মূলত মেয়েদের ফর্সা হওয়ার ক্রিম গুলো নাইট ক্রিম হয়ে থাকে। এর কারণ হচ্ছে দিনের বেলায় যদি এই ক্রিম ব্যবহার করা হয় তাহলে রোদ্রের তীব্র আলোয় সেগুলো সঠিক কাজ করতে পারবে না। এর ফলে বেশিরভাগ ফর্সা হওয়ার গেমগুলো নাইট ক্রিম হয়ে থাকে। যেগুলো রাতে ব্যবহার করলে অনেক ভালো উপকার পাওয়া যায়। যেসকল বোনেরা ফর্সা হওয়ার নাইট ক্রিম এর নাম জানতে চাচ্ছেন তাদের জন্য আজকে আমরা বিশ্বখ্যাত কিছু ফর্সা হওয়ার নাইট ক্রিম এর পিকচার এবং এর গুণগত মান আপনাদের সাথে শেয়ার করব। তাহলে চলুন সেগুলো দেখা যায়।

ওলে ন্যাচারাল হোয়াইট অল ইন ওয়ান ফেয়ারনেস নাইট ক্রিম

এই ক্রিমটি অত্যন্ত ঘন। ক্রিম এর ব্যবহার হচ্ছে আপনারা রাতে শোয়ার আগে ভালোভাবে পরিমাণমতো মুখে খুব  কোমল ভাবে স্কিনে লাগাবেন। যতক্ষণ পর্যন্ত স্কিনে মিলিয়ে না যাচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত হালকা ভাবে থাকবেন।দাম পড়বে প্রায় ৩৮৪ টাকা।

 হিমালয় রিভিটালিজিং নাইট ক্রিম( Himalaya Revitalizing Night Cream)

হিমালয় গ্রুপের একটি ক্রিম এটি। নাইট ক্রিম হিসেবে এই ক্রিমটি আলোচিত একটি ক্রিম। আপনি যদি প্রতিদিন ঘুমানোর আগে আপনার মুখের স্কিনের খুব ভালোভাবে এই ক্রিমটি ব্যবহার করেন তাহলে খুব শীঘ্রই আপনি স্থায়ীভাবে ফর্সা হয়ে যাবেন।দাম পড়বে আনুমনিক ২০০ টাকা।

 লোটাস হারবাল নিউট্রানাইট নাইট ক্রিম (Lotus Herbals Nutranite Night Cream)

এই ক্রিমটি মূলত তৈলাক্ত স্কিনের জন্য। যাদের স্ক্রিনে অনেক অয়েলি ভাব আছে তারা যদি রেগুলার রাতে ঘুমানোর আগে মুখ ভালোভাবে পরিষ্কার পানি দিয়ে ওয়াশ করে প্রতিদিন এই ক্রিম ব্যবহার করে তাহলে খুব শীঘ্রই তার মুখের অয়েলি ভাব কেটে যাবে এবং স্থায়ীভাবে ফর্সা হয়ে যাবে।দাম পড়তে পারে ৪১০ টাকা।

 ল’রিয়াল প্যারিস হোয়াইট পারফেক্ট নাইট ক্রিম (Loreal Paris White Perfect Night Cream):

এই ক্রিমটি অন্যান্য ক্রিম এর তুলনায় অনেক হালকা। হালকা হওয়ার কারণে আপনারা ভয় পাবেন না কারণ এই ক্রিমটি বিশেষ একটি গুণ রয়েছে সেটি হচ্ছে যাদের মুখে মেছতা জাতীয় দাগ রয়েছে এই ক্রিম রেগুলার বা প্রতিদিন রাতে নিয়মিত ব্যবহার করলে কিছুদিনের মধ্যে মেছতা দাগ চলে যাবে এবং আপনি স্থায়ীভাবে ফর্সা হয়ে যাবেন।দাম পড়তে পারে প্রায় ৭৭০ টাকা।

পন্ডস গ্লোড র‍্যাডিয়েন্স ইউথফুল নাইট ক্রিম (Ponds Gold Radiance Youthful Night Repair Cream):

এই ক্রিমটি  প্রতিদিন ব্যবহারের ফলে আপনার ত্বকের মশ্চারাইজার বেড়ে গিয়ে ত্বকের একটু গুলো নিয়ে আসবে। সে যদি আপনার ত্বক তেলচিটচিটে ভাব থাকে তাহলে সে ভাব কেটে যাবে।দাম পড়বে প্রায় ৯৫০ টাকা।

পরিশেষে একটি কথাই বলবো আমরা চেষ্টা করেছি বাংলাদেশসহ পৃথিবীর বেশকিছু নামিদামি কোম্পানির প্রোডাক্ট আপনাদের সাথে শেয়ার করতে। এই প্রোডাক্ট গুলো আপনারা আসল অরজিনাল পণ্য দেখে কিনবেন। কারণ বাজারের এর কপি প্রোডাক্ট রয়েছে। যেগুলো ব্যবহার করলে আপনি আশানুরূপ ফলাফল পাবেন না।

শীতে মেয়েদের ত্বকের যত্ন ২০২২

Exit mobile version