Poetry

বউকে নিয়ে রোমান্টিক কবিতা

বউকে নিয়ে রোমান্টিক কবিতা,সম্মানিত ভিজিটর, আজকে আমাদের আলোচনার বিষয় হচ্ছে বউকে নিয়ে রোমান্টিক কবিতা। আজকে আমরা আপনাদের সাথে সুন্দর কিছু রোমান্টিক কবিতা শেয়ার করব। যে কবিতাগুলো আপনার অর্ধাঙ্গিনী বা বউকে যদি আবৃত্তি করে শোনান তাহলে অবশ্যই তিনি খুশি হবেন। আজকে আমাদের এই পুরো টপিকটি হবে বউকে নিয়ে রোমান্টিক কবিতা একটি প্রতিবেদন।

আমরা যারা বিয়ে করেছে তারা প্রত্যেকেই অর্ধাঙ্গিনী হচ্ছে সবচেয়ে কাছের মানুষ। কারণ বিপদে-আপদে যেকোনো সময় তাদের কাছে কথাগুলো শেয়ার করা যায় এবং সেই সাথে তাদের কাছ থেকে অনেক তথ্য নেওয়া যায়।

মূলত আদরের জিনিস ভালোবাসার জিনিস। যাকে সব সময় আগলে রাখতে হয়। সারাদিন সকল কাজকর্ম শেষে যখন আপনি ঘরে ফেরেন তখন আপনার বউয়ের হাতের যেকোনো কিছু খেলে আপনার সারাদিনের ক্লান্তি মুছে যায়। সেইসাথে যখন রাতে সাথে কথোপকথন করেন তখনও হৃদয় অনেক প্রশান্তি বিরাজ করে।

Read More>> বসন্ত কবিতা রবি ঠাকুরের- বসন্ত নিয়ে ৩ টি কবিতা

চাঁদ নিয়ে জীবনানন্দের কবিতা

সে মানুষটিকে একটু আনন্দ দিতে পারলে নিজেকে অনেক ধন্য মনে হয়। কারন একটি মেয়ে তার পরিবারের জন্য সারা জীবন বিসর্জন দিয়ে আসে। সে মানুষটিকে যদি একটি প্রেমের রোমান্টিক কবিতা শোনানো যায় তাহলে কতই না আনন্দ লাগবে। তাদের একটু আনন্দ আমাদের অনেক বড় অনুপ্রেরণা।

  • অনেক দিন পর তোমাকে দেখলাম___ তোমাকে দেখে থমকে দারিয়ে ছিলাম___ আমি খুব কস্টে নিজেকে সামলে নিলাম___ যখন তুমি আমাকে দেখে না দেখার ভান করলে তখন আমার দারুন লেগেছে ___ তোমাকে সেই অনুভুতির কথা বলে বুঝাতে পারবো না
  • বউকে নিয়ে রোমান্টিক কবিতা
  • লাগবে যখন খুব একা, চাঁদ হয়ে দিবো দেখা ..মনটা যখন থাকবে খারাপ, স্বপ্নে গিয়ে করবো আলাপ ..কষ্ট যখন মন আকাশে, তাঁরা হয়ে জ্বলবো পাশে

বউকে নিয়ে রোমান্টিক ছন্দ

আমরা আপনাদের সাথে বউকে নিয়ে রোমান্টিক ছন্দ শেয়ার করব। তার আগে একটা কথা বলে রাখি আমাদের সমাজে এখনও প্রচলিত আছে। বউ হচ্ছে কাজের মানুষের সমতুল্য। সে সংসারে আসবে সংসারের সকল কাজকর্ম করবে এতোটুকুই। আমাদের দেশের সম্ভব সমাজ এখনও এ ধরনের রীতি নীতি থেকে বের হয়ে আসতে পারেনি। আমি তাদের বলব আপনারা এই ধরনের চিন্তাভাবনা মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলুন। প্রত্যেকটি মানুষের একটি স্বাধীনতা রয়েছে।

যে মানুষটি আপনার জন্য সারা জীবন তার সকল ভালো-মন্দ বিসর্জন দিয়ে আপনাকে ভালো রাখার জন্য সকল কিছু করে। সেই মানুষটির সাথে যদি আপনি খারাপ ব্যবহার করেন তাহলে সেটা পশুতুল্য।

বিবাহিত যেসকল ভাইরা আছে তাদেরকে বলব আপনারা আপনাদের বউকে অন্তত সপ্তাহে একটি দিন পরিপূর্ণ সময় দেন। যাতে তারা সারা সপ্তাহ কষ্ট আপনার ওই একটি দিনের ভালোবাসায় সকল কিছু ভুলে নিজেকে নতুন করে শুরু করতে পারে। চাইলে আপনি তাকে সপ্তাহে একদিন কোন রেস্টুরেন্টে নিয়ে ঘোরাতে যেতে পারেন। সেখানে মজার মজার খাবার খেতে পারেন। সে সাথে কোন পার্কে 20 টাকার বাদাম নিয়ে নিলি পিলি কোথাও বসে দুজনের মনের ভাব প্রকাশ করতে পারেন। মেয়েদের ভালো রাখার জন্য এতটুকুই যথেষ্ট। তারা চায় তাদের স্বামীর ভালবাসা।

বউকে নিয়ে রোমান্টিক ছন্দ

  1. রাত যেভাবেই আসুক, নীরবতা থাকবেই । চাঁদ যেভাবেই থাকুক জ্যোৎসনা ছড়াবেই । সূর্য যতই মেঘের আড়ালে থাকুক, পৃথিবীতে আলো আসবে । আর নিজেকে যতই লুকিয়ে রাখ না কেনো ভালোবাসা তোমাকে কাছে টানবেই ।

2. কারো ভালোবাসা পাওয়া ভালোবাসা নয়।

দূরে থাকলে মুহূর্তের মধ্যে কাউকে মনে রাখাটাও ভালোবাসা।

3. হৃদয়ে স্থির হয়ে কেউ চলে গেলে,

বিচ্ছেদের পর কত যন্ত্রণা,

যে পাস করে তার মূল্য নেই,

চলে যাওয়ার পর অভাব অনুভব করে।

4. আমি চাই না দুঃখের ঝড় চলে যাক,

দুশ্চিন্তা হল আপনার হৃদয় যেন পরিবর্তন না হয়,

যদি ভুলে যেতেই হয়, তবে আমার একটা উপকার কর,

এত কষ্ট দিতে যে আমার জীবন নষ্ট হয়ে যায়।

তোমায় ভালোবাসতে জানতাম না

আমার প্রশ্নের কোন উত্তর পাইনি।

জাগ্রত থাকি তোমার ভাবনায়,

আর ঘুমের পরও তুমি আমাদের স্বপ্নে পাওনি।

পরিশেষে আপনাদের একটি কথাই বলবো সেটি হচ্ছে আপনারা আপনাদের ভক্তের যথেষ্ট ভালোবাসবেন তাদের সময় দেওয়ার চেষ্টা করবেন তাদের মনকে বোঝার চেষ্টা করবেন। কারণ বর্তমান সময়ের ডিভোর্স এর হার বেড়ে গিয়েছে। এর প্রধান কারণ হচ্ছে একজন স্বামী তার স্ত্রীকে পর্যাপ্ত সময় না দেওয়ার কারণ এবং তার মনের কথাগুলো বোঝার চেষ্টা করো। যার ফলে তারা দীর্ঘদিন এই যন্ত্রণা সহ্য না করার কারণে তারা দিবস নিয়ে নতুন সুখের সন্ধানে চলে যায়।