status

শবে কদর শুভেচ্ছা স্ট্যাটাস উক্তি ও হাদিস জানুন ২০২২

শবে কদর শুভেচ্ছা স্ট্যাটাস উক্তি ও হাদিস জানুন ২০২২।আজ পবিত্র লাইলাতুল বরাত শবে কদর। সকল মুসলিম এই সবে কদরের রাত্রি নামাজ আদায় করে থাকে। শবে কদরের রাত্রি বাংলাদেশ পালন করে থাকে 27 রমজানে রাত্রিতে। তবে কোরআন এবং হাদিসের আইন অনুযায়ী দশম জানের রাত্রি গুলোর মধ্যে শবে কদর তালাশ করা।

আজকে আমরা আপনাদের সাথে পবিত্র লাইলাতুল বরাত শবে কদর উপলক্ষে শুভেচ্ছা স্ট্যাটাস উক্তি শেয়ার করব। এর ফলে আপনারা এই পবিত্র রাতে সকল মুসলিম ভাই ও বনেদের শবে কদরের শুভেচ্ছা স্ট্যাটাস শেয়ার করে তাদেরকে শবে কদরের শুভেচ্ছা জানাতে পারবেন।

শবে কদর শুভেচ্ছা স্ট্যাটাস

সকল মুসলিম ভাই ও বোনেদের জানাই শবে কদরের শুভেচ্ছা। আপনারা যাতে সবাইকে শবে কদরের শুভেচ্ছা জানাতে পারেন তার জন্য আজকে আপনাদের কোরান ও হাদিসের আলোকে শবে কদরের শুভেচ্ছা স্ট্যাটাস শেয়ার করব। আশা করি আপনাদের ভালো লাগবে এবং আপনারা এই শুভেচ্ছা স্ট্যাটাস গুলো সকলের মাঝে শেয়ার করে দিবেন।

শবে কদর শুভেচ্ছা স্ট্যাটাস

>>এসেছে শবে কদর মহান রবের কাছে প্রার্থনা করে আমাদের জন্য ক্ষমা চেয়ে আমাদের সামনের দিনগুলো কে মঙ্গল কামনা করার জন্য দুহাত তুলে অশ্রু ঝরানো।(শবে কদরের শুভেচ্ছা)

>>পূর্ণ এক বছর পরে আমাদের সামনে উপস্থিত হয়েছে লাইলাতুল কদর শবে কদর। এটি মানবজাতির জন্য মঙ্গল কামনার জন্য সুবর্ণ একটি রাত্রি। (শবে কদরের শুভেচ্ছা)

শবে কদর নিয়ে উক্তি

>>এই রাত দোয়া কবুলের রাত, এই রাত ক্ষমার রাত, এড়াতে রিজিক বৃদ্ধির রাত, এই রাত হায়াত দীর্ঘায়িত করার রাত, শুধু রাত্রি জেগে মহান রবের কাছে চাইতে হবে। সবাইকে শবে কদরের শুভেচ্ছা

>>হাজার মাসের চেয়েও এই রাত উত্তম। এ রাতে আমাদের অপরাধের অনুতপ্ত এবং আমাদের সকল কৃতকর্মের জন্য নিজেকে গুটিয়ে নেওয়া।(শবে কদরের শুভেচ্ছা)

>>লাইলাতুল কদরের ইবাদত হাজার মাস এবাদত করার চেয়েও উত্তম।

>>এই রাত্রিতে তোমরা কোরআন তেলাওয়াত নফল নামাজ জিকির বেশি বেশি করতে থাকো।

>>রমজান মাসের শেষ দশকের মধ্যে যেকোনো বেজোড় রাত্রি তে তোমরা শবে কদর খোঁজ করিতে থাকো।

>.>হে রব তুমিতো ক্ষমাশীল শবে কদরের রাত্রি তে তুমি আমাদের সকলকে ক্ষমা করে দাও।

>>শবে কদর বিশেষভাবে দোয়া কবুল হয়ে থাকে, তাই এড়াতে বেশি করে দোয়া করা চাই।

শবে কদর নিয়ে উক্তি

শবে কদর নিয়ে উক্তি

কোরআন ও হাদিসের আলোকে পবিত্র লাইলাতুল বরাতের উক্তি সমূহ তুলে ধরা হয়েছে আপনাদের জন্য। এতে করে আপনাদের ইসলামের প্রতি সেইসাথে হাদিস ও কোরআন থেকে বিভিন্ন ধরনের ইসলামিক উক্তি গুলো শিখতে পারবেন এবং মানুষকে তা শেয়ার করে তাদেরও শেখার সুযোগ করে দিতে পারবেন।

>>হজরত রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেন, যদি কেউ লাইলাতুল কদর খুঁজতে চায় তবে সে যেন তা রমজনের শেষ দশ রাত্রিতে খোঁজ করে। (মুসলিম, হাদিস নং : ৮২৩)

>>যদি কেউ এ বছরের লাইল তুল কদর মিস করে, সে এক হাজার মাসের ইবাদাত মিস করে! আর কে জানে এটাই হতে পারে শেষ রমজান***

>>যদি সারা বছরের মধ্যে কদরের রাত হয়, তবে তা পাওয়ার জন্য আমি সারা বছর রাতের নামাজে দাঁড়িয়ে থাকতাম। তাহলে আপনি কি মনে করেন মাত্র দশ রাতের জন্য কি করা উচিত? – ইবনুল কাইয়িম বলেন:

>>একদা হযরত উবায়দা (রা.) নবী করীম (সা.) কে লাইলাতুল কদরের রাত সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করলে তখন নবীজী সেই সাহাবিকে বললেন রমজানের বেজোড় শেষের দশ দিনের রাতগুলোকে তালাশ করো। (বুখারি, হাদিস নং: ২০১৭)

>>আয়েশা বর্ণনা করেছেন: রমজানের শেষ দশ দিন শুরু হওয়ার সাথে সাথে, নবী (সাঃ) তার কোমরের বেল্ট শক্ত করতেন (অর্থাৎ কঠোর পরিশ্রম করতেন) এবং সারা রাত নামাজ পড়তেন এবং তার পরিবারকে নামাজের জন্য জাগিয়ে রাখতেন। [বুখারী]

শেষে আপনাদের একটি কথাই বলবো যদি আমাদের এই পোস্টটি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই শেয়ার করে দিবেন। কারণ আজকে যদি আপনি পোস্টটি শেয়ার করে দেন তাহলে অবশ্যই আপনি নেকির ভাগীদার হবেন। এর কারণ হচ্ছে লাইলাতুল বরাতের কোরআন হাদিসের আলোকে যে পোস্টগুলো করেছেন সেগুলো সবাই শিখতে পারব এবং জানতে পারবে এতে আপনার নেকি বৃদ্ধি পাবে।