halth tips

ঠোট লাল করার সহজ উপায়-লেবু ব্যবহার করে ঠোট লাল করার কৌশল

ঠোট লাল করার সহজ উপায়

আজকে আপনাদের বোলব ঠোট লাল করার সহজ উপায় সম্পর্কে। আমাদের সমাজে অনেকে আছে যাদের ত্বক ফর্সা কিন্তু ঠোঁট কালো। তারা সব সময় একটি হতাশায় ভোগে। তারা মনে করে যে তাদের এই ঠোট লাল হয়তোবা আর কখনো করতে পারবে না। তাদের জন্য আজকের সহজ উপায় ঠোট লাল করার কিছু কৌশল বলবো। যাতে আপনারা খুব সহজেই আপনাদের ঠোট লাল করতে পারেন। অনেকেরই আছে এই ঠোট বংশগতভাবে কালো। আবার অনেকেরই ধূমপান করার নেশা আছে যার ফলে ঠোঁট কালো হয়ে যায়। ঠোঁটের চামড়া সব চাইতে নরম। ধূমপান করার ফলে ঠোঁটে প্রচুর তাপ লাগে যার কারণে ঠোঁট কালো হয়ে যায়। আবার অনেকে গরম চা পান করে তার ফলও ঠোঁট কালো হতে পারে। ঠোঁটে কোন প্রকার গরম লাগানো যাবে না। তাহলে আপনাদের ঠোঁট কালো হয়ে যাবে। ঠোট লাল করার কিছু উপায় নিচে দেওয়া হল।

আরো পড়ুন

  1. ত্বক ফর্সা করার সহজ ঘরোয়া উপায়
  2. ওজন কমানোর টিপস (ওজন কমাতে শসার ভূমিকা)

আজকের ট্রপিক:

লেবু ব্যবহার করে ঠোট লাল করার কৌশল

লেবু আমরা চিনি না এমন কোনো মানুষ নেই।লেবু দ্বারা আপনারা কিভাবে আপনাদের ঠোঁট লাল করবেন তার কিছু কৌশল আজকে আপনাদের বলব। লেবু একটি খুবই উপকারী ফল। এর মধ্যে প্রচুর ভিটামিন সি আছে। যা আমাদের শরীরের জন্য খুবই উপকারী। কিন্তু এর আরেকটি উপকারিতা আছে। সেটি হচ্ছে এটি দ্বারা আমাদের ঠোঁট লাল করা যায়। প্রতিদিন গোসল দেওয়ার আগে আপনি একটি লেবুর টুকরো হালকা নরম করে তা ঠোটে ১-2 মিনিট ঘষবেন। তাহলে লেবুর মধ্যে থাকা যে  এসিড টি আপনার ঠোঁটের উপরের যে কালো চামড়া আছে তা পরিষ্কার করে ফেলবে। এভাবে আপনি এক সপ্তাহ ট্রাই করুন। তাহলে দেখবেন আপনার ফলাফল অনেকটাই এসে গেছে। কিন্তু আপনাকে এই টিপসটি প্রতিদিন ব্যবহার করতে হবে। তা না হলে আপনি আশানুরূপ ফল পাবেন না।

চুন দিয়ে ঠোট লাল করার উপায়

আমরা একটু আগে বলেছি যে লেবু দিয়ে আপনার ঠোট টা খুব তাড়াতাড়ি লাল করতে পারবেন। কিন্তু আপনারা আরও একটি আইটেম লেবুর সাথে যোগ করে দিতে পারবেন। তাহলে এর উপকারিতা আরো বেড়ে যাবে। সেটা হচ্ছে আপনি লেবুর সাথে একটু চিনি ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। যখন দেখবেন লেবুর রস আর চিনি মিশিয়ে একাকার হয়ে গেছে। তখন আপনি সেই রস ঠোঁটের মধ্যে লাগান। প্রতিদিন ঘুমানোর আগে ঠোঁটে লাগিয়ে শুতে যাবেন।এভাবে এক সপ্তাহ ব্যবহার করলে আপনার ঠোঁট রক্তের মত লাল হয়ে যাবে। চুন দিয়ে ঠোট লাল করার উপায়  খুব সহজে আপনাদের ঠোঁট লাল করতে পারবেন। কিন্তু চুন কিভাবে ব্যবহার করবেন। এক চামচ চুনের সাথে এক চামচ মধু এবং এক চামচ গ্লিসারিন ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি হয়ে গেলে তারপর সে মিশ্রণটি ধীরে ধীরে ঠোঁটে প্রয়োগ করুন। 2 ঘন্টা রাখার পর তা ধুয়ে ফেলুন। এটি অতিরিক্ত পরিমাণে লাগাবেন না তা হলে হিতে বিপরীত হতে পারে।

 ঠোঁট লালে হলুদের ব্যাবহার

আমরা জানি হলুদের নানা বিধি উপকারী গুণ রয়েছে। গবেসনা দেখা গেছে যে হলুদে দাঁড়া ঠোট লাল করা যায়। পরিমান মত হলুদ নিয়ে তার সাথে এক টেবিল চামচ দুধ মিশিয়ে তা পেশ আকারে বানান। তারপর সেই বৃষ্টি আপনি ঘুমানোর আগে আপনার ঠোঁটে আলতো ভাবে লাগান। তারপর কিছুক্ষণ রেখে দিন। তারপর শীতল পানি দিয়ে তা আস্তে আস্তে ধুয়ে ফেলুন। এভাবে এক সপ্তাহ ব্যবহার করুন। তাহলে আপনি নিজেই এর ফলাফল দেখতে পারবেন।

এখন আপনাদের কিছু মেডিসিন দ্বারা ঠোট লাল করার উপায় সমূহ বলবো। বাজারে অনেক ধরনের ক্যাপসুল এবং মলম রয়েছে যা দ্বারা আপনি আপনার ঠোঁট খুব সহজেই এবং খুব তাড়াতাড়ি লাল করতে পারবেন। সেগুলো হচ্ছে

ই-ক্যাপ

ই ক্যাপ আমরা সবাই চিনি এটি খুব উপকারী একটি ঔষধ।আপনি যদি এই ইকাব একটি ক্যাপসুল কেটে তার ভেতরের যে মেডিসিন রয়েছে তা আপনার ঠোঁটে লাগাবেন।ভিটামিন-ই ঠোঁটে লাগালে ঠোটে রক্ত চলাচল বেড়ে যায় এবং ঠোট লাল হয়ে যায়।

তারপর আরেকটি মলম রয়েছে সেটি হচ্ছে ক্লোভেট। আপনার যদি এই মলমটি প্রতিদিন ব্যবহার করেন।তাহলে আপনার এক মাসের মধ্যে আপনার ঠোঁট উজ্জ্বল লাল বর্ণের হয়ে যাবে। এই ক্রিমটি ঠোঁটে লাগালে ঠোঁটের উপরের কালো চামড়া আস্তে আস্তে পরিষ্কার হয়ে যায়। যার ফলে ভিতরে লাল তোকে বেড়ে যায় এবং ঠোট লাল হয়ে যায়

আমাদের এই তথ্যটি যদি আপনাদের কাছে ভাল লেগে থাকে কিংবা আপনাদের একটু উপকারে আসে তাহলে আমাদের কমেন্ট বক্সে জানিয়ে দিন এবং অন্যকে শেয়ার করে তাকে পড়ার সুযোগ করে দিন।